🇧🇩ধামরাই ইটভাটার আইন লঙ্ঘন করার অপরাধে ৫ লাখ টাকা জরিমানাও দুইটি ইটভাটা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হলো।🇧🇩

0
34

ধামরাই উপজেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযানে ধামরাইয়ে দুটি অবৈধ ইটভাটার চিমনি ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও একটি ইটভাটার মালিককে ইটভাটার আইন লঙ্ঘন করার অপরাধে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মোঃআদনান হোসেন ধামরাই ঢাকা থেকেঃ গতকাল দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্তএ অভিযান চলে ধামরাই উপজেলার নান্নার ইউনিয়নে স্হানীয় যুবলীগ নেতা আব্দুল লতিফের একতা ব্রিকস ও ওয়াজেদ আলীর এমকেবি ব্রিকস নামের দুটি অবৈধ ইটভাটার চুল্লী ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়াও ঘোড়াকান্দা এলাকার পাওয়ার ব্রিকসের মালিক আইন লঙ্ঘন করার অপরাধে ওই ইটভাটার মালিক মাহবুবুর রহমানকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

উক্ত সময়ে ঢাকা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মঈনুল হক ও ধামরাই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা আক্তারের যৌথ নেতৃত্বে এসব অবৈধ ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ধমরাই এর সহকারী কমিশনার (ভূমি) এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা আক্তার বলেন, হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুয়ায়ী অবৈধ ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। অবৈধ ভাটাগুলো ভেঙে ফেলার নির্দেশনা রয়েছে। তারা বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় দুটি ইটভাটার চুল্লী ভেঙে দেয়া হয়েছে। ইট উৎপাদন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও একটি ভাটাকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বলেন, ঢাকা জেলা প্রশাসন এবং ধামরাই উপজেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে নান্নার ইউনিয়নের মেসার্স একতা ব্রিকস এবং মেসার্স এমকেবি ব্রিকস নামে দুটি অনুমোদন বিহীন ইট ভাটার চিমনি গুড়িয়ে দেয়া হয় এবং অপর একটি ইট ভাটা মেসার্স পাওয়ার ব্রিকসকে আইন লঙ্ঘন করার দায়ে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মঈনুল হক এবং ধামরাই উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা আক্তার।