🇧🇩ধামরাই কৃষক হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন।🇧🇩

0
0

✍️মোঃআদনান হোসেন ধামরাই ঢাকা থেকেঃ ধামরাই উপজেলার কুল্যা ইউনিয়ন আরালিয়া গ্রামের কৃষক সেলিম তালুকদারের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন এলাকার সর্বস্তরের নারী-পুরুষ।

আজ বুধবার সকালে এ বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।ধামরাই উপজেলার কুল্যা ইউনিয়ন বড়করই গ্রামের জনতা সহ বাজারের পাশে আরলিয়া,চকপাড়া,চৌটাইর,সিতি পারলি পাঁচ গ্রামের কয়েকশ নারী-পুরুষ দলমত-নির্বিশেষে আজ সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেন। এ সময় বক্তব্য দেন ভুক্তভোগীর বাবা আবদুল কাদের তালুকদার ব্যবসায়ী রুহুল স্ত্রী সাবিনা বেগম, স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন, মোঃশরিফুল ইসলাম , ব্যবসায়ী আবদুল রহিম, স্কুলশিক্ষক তোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ।

নিহতের বাবা আব্দুল কাদের তালুকদার বলেন, খুনিরা পরিকল্পিতভাবে আমার ছেলেকে হত্যা করেছে। পুলিশ এসে নিষেধ করে গেলেও তারা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক আমাদের জমি থেকে মাটি কাটতে শুরু করে। এঘটনা আমরা বাঁধা দিতে তারা আমার ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করে।

ভুক্তভোগীর বোন সাংবাদিক দের জানান,আমার ভাই সেলিম তালুকদারকে প্রকাশ্যদিবালোকে পিটিয়ে ও কুবিয়ে হত্যা করা হয়। আমাদের জমি থেকে মাটি কাটা বাধা দেওয়ায় তার উপর নির্যাতন করে হত্যাকরা হয়।ভুক্তভোগী আরোও বলেন,খুনি সাত্তার, জাহিদ, দ্বিন ইসলাম, জহিরুল,লিটন,জব্বার, লালমিয়া এদের আইনের আওতায় এনে ফাঁসিদাবি করেন।

ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান বলেন, কৃষক সেলিম হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে হত্যাকারীদের তিন জন উচ্চ আদালত থেকে জামিনে রয়েছে। এছাড়া মামালাটি বর্তমানে পিবিআইতে হস্থান্তর করা হয়েছে। তাদের পাশাপাশি আমরাও আসামীদের গ্রেপ্তারে তৎপর আছি। খুব দ্রুত তাদেরকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গগতঃগত ২২/১০/২০২২ তারিখে হত্যার ঘটনায় ধামরাই থানায় একটি মামলা করা হয়,মামলা নং-৩৩।ভুক্তভোগীর দাবি উক্ত মামলার পরও আসামিরা নির্ভয়ে এলাকায় ঘুরেবেড়ায়, তাঁদের আইনের আওতায় এনে ফাঁসি কার্যকর করা হোক।