🇮🇳🇧🇩মহারাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশ সদভবনা সাইকেল যাত্রা🇧🇩🇮🇳

0
15


পশ্চিম মেদিনীপুর, শান্তনু বর্দ্ধন 🇮🇳ঃ
ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর, বঙ্গবন্ধু মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষকে সামনে রেখে “স্নেহালয়” নামক একটি সংস্থার উদ্যোগে মহারাষ্ট্রের আহম্মদনগর থেকে বাংলাদেশের নোয়াখালী পর্যন্ত একটি সদভাবনা সাইকেল যাত্রা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।গত ২রা অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তীর দিন “জোড়ে ভারত,জয় জগৎ” শ্লোগানকে সামনে রেখে, একশো জন সদস্যকে নিয়ে ৭৫ দিনের এই সাইকেল যাত্রা শুরু হয়েছে। এই সাইকেল যাত্রায় মূল সহযোগী হিসেবে রয়েছেন রোটারী ক্লাব অফ আহম্মদনগর এবং প্রেমরাজ সারডা মহাবিদ্যালয়। ভারতের বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যের বিভিন্ন এলাকা ছুঁয়ে, বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা পরিক্রমন করে ১৬ ই ডিসেম্বর নোয়াখালী পৌঁছানোর কথা।সব মিলিয়ে এঁদের যাত্রাপথ প্রায় তিন হাজার কিলোমিটার। অভিযাত্রী দলটি মেদিনীপুরে এসে পৌঁছায়, সারাদিন মেদিনীপুর শহরে থাকে এই দলটি। এঁরা মেদিনীপুর থেকে কোলাঘাটের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। এই দলে নেতৃত্ব দিচ্ছেন অধ্যাপক ড.গিরীশ কুলাকার্নী। এই দলে যেমন রয়েছেন ৬২ বছরের অবসর প্রাপ্ত ব্যাংককর্মী সিদ্ধার্থ বাগমারে, তেমনি রয়েছেন দশ বছরের স্কুল ছাত্র সিদ্ধার্থ আওয়ারে। রয়েছেন সমাজকর্মী বিশাল আহিরে, ৫৯ বছর বয়স্ক মহিলা হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক মেঘনা মারাঠে, অধ্যাপক যোগেশ গৌলি,অধ্যাপক অঙ্কুশ আওয়ারে,কলেজ ছাত্রী রতু ঝা , ভি আর এস নেওয়া বেসরকারি সংস্থার কর্মী মহেশ বডগুজর সহ অন্যান্যরা। এই দলে রয়েছেন কেরালার অভিযাত্রী অজিত রাজগোপাল, রয়েছেন একহাতে সাইকেল চালানো অভিযাত্রী দত্তু থোরাথ,কানে শুনতে না পাওয়া অভিযাত্রী রত্নাকর সেজওয়ার, রয়েছেন সাইকেল রিপিয়ারিং থেকে শুরু করে নানা কাজে পারদর্শী অভিযাত্রী সুনীল কামলে। মেদিনীপুরে শ্যামসংঘ ও বেরা ডিস্ট্রিবিউটরের আতিথিয়তা এঁরা গ্রহণ করেছেন। বেরা ডিস্ট্রিবিউটরের পক্ষ থেকে অভিযাত্রীর প্রয়োজন থাকা সাইকেল গুলিকে টেকনিক্যাল সার্পোট দেওয়া হয়।অন্যান্য জায়গার পাশাপাশি অভিযাত্রী দলটি মেদিনীপুর নির্মল হৃদয় আশ্রম স্কুল ও চার্চ পরিদর্শন করেন এবং ফাদারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। অভিযাত্রী দলের পক্ষে অধ্যপক কুলকার্নি, সমাজকর্মী বিশাল আহিরে, অধ্যাপক অঙ্কুশ আওয়ারেরা জানান ঐতিহাসিক মেদিনীপুর শহরের আতিথিয়তায় তাঁরা মুগ্ধ এবং দীপাবলি উৎসবের আনন্দ এই শহরে পালন করতে পেরে তাঁরা খুশি। বেরা ডিস্ট্রিবিউটরের কর্ণাধার সুকুমার বেরা জানান,এই রকম একটি অভিযাত্রী দলকে মেদিনীপুর বাসীর তরফে আপ্যায়িত করতে পেরে তাঁরা খুশি। অভিযাত্রী দলটি যাত্রাপথের বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন ভাবে সদভাবনা, সম্প্রীতি,একতার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি পরিবেশ সচেতনতার বার্তা দিতে দিতে তাদের যাত্রা এগিয়ে নিয়ে চলেছে।