🇮🇳 ‘তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেব’, হুঙ্কার সদ্য BJP-তে যোগ দেওয়া এই বিদায়ী বিধায়কের

অনলাইন নিউজ ডেস্ক: কিছুদিন থেকেই জল্পনা ছিল তুঙ্গে। সব জল্পনা সত্যি করে BJP-তে যোগ দিলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহার বিধানসভা কেন্দ্রের দুইবারের নির্বাচিত তৃণমূল কংগ্রেসের বিদায়ী বিধায়ক অমল আচার্য। বুধবার ইটাহারের উল্কা ক্লাব ময়দানে আয়োজিত যোগদান সভায় উপস্থিত ছিলেন রায়গঞ্জের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার, BJP-র জেলা সভাপতি বিশ্বজিত লাহিড়ী সহ অন্যান্য নেতৃত্ব। সেখানেই অমল আচার্য যোগ দেন BJP-তে।

উল্লেখ্য, ২০১১ ও ২০১৬ সালে ইটাহার কেন্দ্র থেকে বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হয়েছিলেন অমল আচার্য। ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পর তাঁকে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেয় দল। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে দল টিকিট দেয়নি অমলকে। তার বদলে এই কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয় একদা তারই ছায়াসঙ্গী মোশারফ হোসেনকে। দলের এই সিদ্ধান্তের পরই ক্ষোভ বিক্ষোভ শুরু হয় দলের অন্দর মহলে। তারপর তৃণমূল দল থেকে পদত্যাগ করেন অমল আচার্য ও তাঁর অনুগামীরা। এরপরেই তাঁর BJP-তে যোগদানের জল্পনা তুঙ্গে ওঠে। সেই যাবতীয় জল্পনা সত্য়ি করে বৃহস্পতিবার তিনি যোগ দেন BJP-তে।

BJP-তে যোগদানের পর এই নেতা জানান, ‘দলে যোগ্য সম্মান না পেয়েই BJP-তে যোগদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছি’। তিনি বলেন, ‘তৃণমূল এখন কর্পোরেট দলে পরিনত হয়েছে। গরুপাচার, কয়লা পাচার সহ বিভিন্ন কেলেঙ্কারির সঙ্গে যুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস। এই দলে আর থাকতে চাই না।’ নাম না করে তৃণমূল প্রার্থীকে ধর্মের নামে ভোট ভাগাভাগির অভিযোগ তুলে বিভেদের রাজনীতি বন্ধের হুঁশিয়ারি দেন তিনি। অমল আচার্য আরও বলেন, ‘উত্তর দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেব।’ আজ প্রাথমিক ভাবে BJP-তে যোগদান করলেও কিছুদিন পরে আরও বড় মঞ্চে শুভেন্দু অধিকারীর উপস্থিতিতে ফের গেরুয়া শিবিরে যোগদান করবেন তিনি। এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী বলেন, ‘অমল আচার্য দলে যোগ দেওয়ায় দল আরও শক্তিশালী হয়েছে।’ অন্যদিকে, তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা রায়গঞ্জের প্রার্থী কানাইয়া লাল আগারওয়াল বলেন, ‘বিষয়টি রাজ্য নেতৃত্ব কে জানানো হয়েছে। এই দলবদলের কোনও প্রভাব পড়বে না।’ কিন্তু চতুর্থদফা ভোটের মুখে এই দলবদল অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।